নামাজে আত্তাহিয়্যাতু পড়ার সময় আঙুল দিয়ে ইশারা কেন করতে হয়? #গুরুত্বপূর্ণ বিষয় জানুন

1753

এনটিভির জীবনঘনিষ্ঠ ইসলামবিষয়ক প্রশ্নোত্তর অনুষ্ঠান আপনার জিজ্ঞাসার ৪৯৬পর্বে ‘আত্তাহিয়্যাতু’ পড়ার সময় শাহাদাত আঙুল দিয়ে সঠিক করণীয় সম্পর্কে আশুগঞ্জ থেকে টেলিফোনে জানতে চেয়েছেন মীর মোহাম্মদ সেলিম। অনুলিখনে ছিলেন জহুরা সুলতানা। প্শ্ন: আত্তাহিয়্যাতু পড়ার সময় আমরা যে শাহাদাত আঙুল উত্তোলন করি। দেখা যায় যে কিছু কিছু লোক উত্তোলন করে ছেড়ে দেয়, কিছু কিছু লোক আঙুলটাকে আস্তে আস্তে উপরে নিচে নাড়াতে থাকে, আবার কিছু লোক আঙুলটাকে সোজা করে উঠিয়ে আঙুলের দিকে তাকিয়ে থাকে। বলে রাসুলের (সা.) নির্দেশ আঙুলের দিকে তাকিয়ে থাকা। আসলে সঠিক কোনটি?
উত্তর: এ ক্ষেত্রে সহিহ পদ্ধতি হচ্ছে, হাদিস দ্বারা যেটি সাব্যস্ত হয়েছে, নবী (সা.) শাহাদাত আঙুল দিয়ে তাওহিদের ইশারা করতেন, তিনি শাহাদাত আঙুলটাকে নাড়াতেন। যখন আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের কাছে দোয়া করতেন তখন রাসুল (সা.) ইশারা করতেন। সুতরাং এটা পুরা সময়টাই ইশারা করার বিষয়টি সহিহ হাদিস দ্বারা সাব্যস্ত হয়েছে। যদি কেউি এভাবে ইশারা করতে চান, তাহলে করতে পারেন। তবে এগুলো মুস্তাহাব বিষয়, এ নিয়ে বাড়াবাড়ির কোনো সুযোগ নেই। -এনটিভি
######################
যে দোআর আমল করলে আল্লাহর ইচ্ছায় দ্রুত সুস্থ হবেন রোগী: আরবি দোআ-০১
«لاَ بأْسَ طَهُورٌ إِنْ شَاءَ اللَّهُ».
বাংলা উচ্চারণ: লা বা’সা তুহুরুন ইন শা-আল্লা-হ, বাংলা অর্থ: “কোনো ক্ষতি নেই, আল্লাহ যদি চান তো (রোগটি গুনাহ থেকে) পবিত্রকারী হবে।” [বুখারী (ফাতহুল বারীসহ) ১০/১১৮, নং ৩৬১৬।] আরবি দোআ-০২
«أَسْأَلُ اللَّهَ الْعَظيمَ رَبَّ الْعَرْشِ الْعَظِيمِ أَنْ يَشْفيَكَ» (সাতবার) বাংলা উচ্চারণ: আসআলুল্লা-হাল ‘আযীম, রব্বাল ‘আরশিল ‘আযীম, আঁই ইয়াশফিয়াকা। (সাতবার) বাংলা অর্থ “আমি মহান আল্লাহ্‌র কাছে চাচ্ছি, যিনি মহান আরশের রব, তিনি যেন আপনাকে রোগমুক্তি প্রদান করেন।” (সাতবার) [নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, কেউ মৃত্যু আসন্ন নয় এমন কোনো রোগীকে দেখতে গেলে, সে তার সামনে এই দোআ সাতবার পাঠ করবে, এর ফলে আল্লাহ তাকে (মৃত্যু আসন্ন না হলে) রোগমুক্ত করবেন। এ দোআ সাতবার পড়বে।] [তিরমিযী, নং ২০৮৩; আবূ দাউদ, নং ৩১০৬। আরও দেখুন, ২/২১০; সহীহুল জামে‘ ৫/১৮০।]