‘বিনা চিকিৎসায় খালেদাকে মেরে ফেলার মতো অমানবিক মানসিকতা সরকারের নেই’

246

শুক্রবার ধানমণ্ডির আওয়ামী লীগ সভাপতির কার্যালয়ে সম্পাদকমণ্ডলীর সভাশেষে প্রেস ব্রিফিংয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানিয়েছেন, বিনাচিকিৎসায় খালেদা জিয়াকে মেরে ফেলার মতো অমানবিক মানসিকতা সরকারের নেই।আজ শুক্রবার গুলশানে এক সংবাদ সম্মেলনে তার মুক্তি দাবি করে বিএনপি মহাসচিব প্রশ্ন রাখেন, সরকার কি খালেদা জিয়াকে জেলখানায়ই মেরে ফেলতে চাচ্ছে? বিএনপি মহাসচিবের এমন বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, খালেদা জিয়াকে বিনাচিকিৎসায় মেরে ফেলতে হবে এ রকম নিষ্ঠুর কাজ আওয়ামী লীগ সরকার করতে পারে না। তিনি বলেন, বিএনপি নেত্রীর চিকিৎসা চলছে। তিনি এখন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন। শেখ হাসিনা সরকার অমানবিক ও নিষ্ঠুর না যে বিনাচিকিৎসায় তিনি (খালেদা) মারা যাবেন।

দলীয় কার্যক্রম প্রসঙ্গে তিনি বলেন, প্রায় আড়াই মাস পর আমি সংগঠনের নেতাকর্মীদের সঙ্গে বৈঠক করলাম। বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে আমরা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছি। ঈদের পর কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদকদের নেতৃত্বে ৮টি টিম মাঠে নামবে। তারা তৃণমূল পর্যায়ে সংগঠনকে সম্মেলনের মাধ্যমে শক্তিশালী করে গড়ে তুলবে। আওয়ামী লীগের কাউন্সিল প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, সম্মেলনের মাধ্যমে দলে নেতৃত্ব ঠিক হবে। অনুপ্রবেশকারীদের ঢোকার সুযোগ থাকবে না। যারা পরীক্ষিত সৈনিক, দীর্ঘদিন ধরে দলে কাজ করছে তারাই নেতৃত্বে আসবেন। ভারতের লোকসভা নির্বাচনে ক্ষমতাসীন বিজেপির আবারও ক্ষমতায় আসা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, নরেন্দ্র মোদি অধিক শক্তিশালী হয়ে ফের ক্ষমতায় এসেছেন। আমরা আশা করব তিস্তা সমস্যাসহ দুই দেশের মধ্যে অমীমাংসিত সমস্যাগুলোর মোদির সরকারের সময়েই সমাধান হবে।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবার ধারণাকে অতিক্রম করে ঐতিহাসিক বিজয় অর্জন করেছেন। এ জন্য আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাকে টেলিফোন করে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। তাকে টুইটও করেছেন। সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ, আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, এনামুল হক শামীম, বিএম মোজাম্মেল হক, মেজবাহ উদ্দিন সিরাজ, শ্রমবিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক প্রকৌশলী আবদুস সবুর, আইনবিষয়ক সম্পাদক শ ম রেজাউল করিম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।