নির্মিত হচ্ছে বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম মসজিদ

264

মক্কার মসজিদে হারাম ও মদিনার মসজিদে নববির পর বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম এক বিশাল মসজিদ নির্মাণ করছে পাকিস্তানের বাহরিয়া টাউন। বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম এ বিশাল মসজিদটি বর্তমানে নির্মাণাধীন।
পাকিস্তানের করাচি শহরের ‘বাহরিয়া টাউন’-এ নির্মিত হচ্ছে এ মসজিদ। মসজিদে হারাম ও মসজিদে নববির পর এটিই হবে বিশ্বের সবচেয়ে বড় মসজিদ। এখানে সঙ্গে ৮ লাখ লোক নামাজ আদায় করতে পারবে।

‘বাহরিয়া টাউন’ রিয়াল স্টেট কোম্পানি তাদের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে এ তথ্য প্রকাশ করেছে। তারা বলেছে-
‘মক্কার মসজিদে হারাম এবং মদিনার মসজিদে নববিই হলো বিশ্বের প্রথম ও দ্বিতীয় বৃহত্তম মসজিদ। আর সম্মান ও মর্যাদায় বিশ্বের অন্য কোনো মসজিদই এ দুই পবিত্র মসজিদে হারাম ও মসজিদে নববির সমকক্ষ নয়। আল্লাহর ইচ্ছায় আমরা পবিত্র দুই মসজিদের পর পাকিস্তানের করাচির ‘বাহরিয়া টাউন’-এ বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম মসজিদ নির্মাণ করছি।’

করাচির ‘বাহরিয়া টাউন’-এ নির্মিত এ বিশাল মসজিদের সঙ্গে থাকবে আন্তর্জাতিক ইসলামি ইউনিভার্সিটি, ইসলামিক সেন্টার, মিউজিয়াম এবং গবেষণা কেন্দ্র।
বর্তমানে পাকিস্তানের লাহোরের ‘বাহরিয়া টাউন’-এ বিশ্বের সপ্তম বৃহত্তম মসজিদ অবস্থিত। এ মসজিদে এক সঙ্গে ৭০ হাজার লোক নামাজ আদায় করতে পারে। এটি পাকিস্তানের বড় মসজিদগুলোর একটি।
করাচিতে নির্মিতব্য মসজিদটি মোঘল ও ইসলামি স্থাপত্যের আদলে তৈরি করা হচ্ছে। এ মসজিদের ডিজাইন করতে গিয়ে ইরান, তুরস্ক, মালয়েশিয়া, কুয়েত এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতের মসজিদগুলো থেকে অনুপ্রেরণা নিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

এ মসজিদের অভ্যন্তরে নির্মিত বিশ্ববিদ্যালয়টিতে থাকবে উন্নত মানের শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা, পানি সরবরাহ ব্যবস্থার পাশাপাশি নিজস্ব তাপ-বিদ্যুৎ উৎপাদন প্রকল্পও বিদ্যমান থাকবে।
উল্লেখ্য যে, ‘বাহরিয়া টাউন’ মূলত পাকিস্তানের রাওয়ালপিন্ডিতে প্রতিষ্ঠিত প্রাইভেট রিয়েল স্টেট ডেভেলপমেন্ট কোম্পানি। পাকিস্তানের বিভিন্ন প্রধান প্রধান শহরে ‘বাহরিয়া টাউন’ নামে তাদের আবাসন রয়েছে।
করাচির বাহরিয়া আবাসিক এলাকায় বিশ্বের তৃতীয় এ বৃহত্তম মসজিদটি নির্মাণ করছে তারা। বাহরিয়া টাউন প্রাইভেট লিমিটেড রিয়েল স্টেট কোম্পানির এ উদ্যোগ নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবি রাখে।