ধর্ষনের সাজা কোন দেশে কেমন? সৌদি আরবে শুক্রবার জুম্মা শেষে জনসম্মক্ষে শিরচ্ছেদ! #বাংলাদেশে…..

3609

ধর্ষনের সাজা কোন দেশে কেমন? সৌদি আরবে শুক্রবার জুম্মা শেষে জনসম্মক্ষে শিরচ্ছেদ!
👉আমেরিকা: ধর্ষিতার বয়স ও ধর্ষনের মাত্রা দেখে ৩০ বছর পর্যন্ত কারাদন্ড ।
👉রাশিয়া: ২০ বছর সশ্রম কারাদন্ড।
👉চীন: কোনো ট্রায়াল নেই, মেডিকেল পরীক্ষার পর মৃত্যুদন্ড ।
👉পোল্যান্ড: হিংস্র বুনো শুয়োরের খাঁচায় ফেলে মৃত্যুদন্ড ।
👉মধ্যপ্রাচ্য আরব দুনিয়া: শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করা পর্যন্ত পাথর ছুড়ে মৃত্যু, ফাঁসি, হাত পা কাটা, যৌনাঙ্গ কেটে অতি দ্রুততার সাথে মৃত্যুদন্ড দেওয়া ।
👉 সৌদি আরব: শুক্রবার জুম্মা শেষে জনসম্মক্ষে শিরচ্ছেদ!
👉দক্ষিন আফ্রিকা: ২০ বছরের কারাদন্ড।
👉মঙ্গোলিয়া: ধর্ষিতার পরিবারের হাত দিয়ে মৃত্যুদন্ড দিয়ে প্রতিশোধ পুরণ ।
👉 নেদারল্যান্ড: ভিন্ন ভিন্ন সাজা ।
👉আফগানিস্তান: ৪ দিনের ভিতর গুলি করে হত্যা ।
👉মালয়শিয়া: মৃত্যুদন্ড।
👉 বাংলাদেশে:

-: প্রতিবাদ🙌-: ধর্না😉 -: তদন্ত😉-: কয়েকসদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন
-: সমঝোতার চেষ্টা😉 -: ঘুষ দেওয়া😛 -: প্রভাবশালীদের লোক 😉 -: ধমক-চমক😛 -: মেয়েটির চরিত্র নিয়ে গবেষণা😰 -: বোরকা পরে ছিলো কি না?😰 -: সংবাদমাধ্যমে আলোচনার আসর😒 -: রাজনীতি করন😡 -: জাতি নির্ধারণ😡 -: জামিন😡 -ফের ধর্ষন😯😱 -:মেয়েটির আত্মহত্যা 😭 -:এবার টিভিতে টকশো 😳 -:মানববন্ধন 🙄 -:ধর্ষক ধরা ছোয়ার বাইরে🤔 -: সব কিছু নর্মাল😓 -:মাঝখানে দুনিয়া ছেড়ে চলে গেলো একটি নির্দোষী/নিঃষ্পাপী প্রাণ যেই মেয়েটিকে নিয়ে তার বাবা-মায়ের ছিল আকাশচুম্বী স্বপ্ন।😭😭 collected

২। ১৯৯৮ সালে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে বাসরঘর সাজিয়ে প্রতিরাতে একজন ছাত্রীকে ধর্ষন করা হতো, এভাবে একশত ধর্ষন করার পর বিশ্ববিদ্যালয়ে মিষ্টি বিতরণ করে উল্লাস করেছিলো ক্ষমতাসীন দলের সোনার ছেলে “জসিমউদদীন মানিক” এরও একটা বিচার হয়েছিলো, তবে ফাঁসি হয় নি। দিবালোকে রামদা দিয়ে রাস্তায় প্রকাশ্যে খাদিজাকে কুপিয়ে তার মাথা কয়েকভাগ করে সিলেটের বদরুল, খাজিদার ভাগ্যভালো মরতে মরতে বেঁচে গেছে। বদরুলেরও একটা বিচার হয়ছে, তবে খুব বেশি হয় নি। ২০১৮ সালে বরিশালের বানারিপাড়ায় মা-মেয়েকে একসাথে ধর্ষন করে মাথা নেড়ি করে দেয় প্রভাবশালী তুফান, তুফানেরও একটা বিচার হয়ছে, তবে ফাঁসি হয় নি। সংরক্ষিত এলাকা কুমিল্লা ক্যান্টেরমেন্ট এর ভিতরে তনুকে ধর্ষন করার পর হত্যা করা হয়, কে বা কারা জড়িত তা কিন্তু গুয়েন্দা বাহিনী ভালো করেই জানে, কিন্তু তনুর ধর্ষনকারী কেউ গ্রেফতার হয় নি, ৩১শে ডিসেম্বর ২০১৮ নোয়াখালীর সুবর্ণচরে দিনের বেলা যুবতি মেয়ের সামনে তার মাকে দলবেঁধে ধর্ষণ করার পর প্রহার করা হয়, ১৭ কোটি মানুষ এর সাক্ষী, ধর্ষক রুহুল আমীনের ফাঁসির দাবি উঠলেও, ফাঁসি কিন্তু হয় নি। কিছুদিন আগে ঢাকার এক আবাসিক এলাকায় ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণ করার পর শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করা হয়, ধর্ষক আটক, তবে তারও কিন্তু ফাঁসি হবে না।
গত কয়েকবছর আগে দেখলাম ৩ বছরের শিশুর যৌনাঙ্গ ব্লেড দিয়ে কেটে ধর্ষন করে হত্যা করা হয়, সেই ধর্ষকও গ্রেফতার হয়ছে, তবে ফাঁসি কিন্তু হয় নি। আজকের নুসরাত তারই ধারাবাহিকতায় হারাবে সময়ের সাথে। এটা এখন অতি স্বাভাবিক একটি বাস্তবতা।
এভাবে আরো কতো ধর্ষণ হচ্ছে মা বোনেরা তার হিসাব রাখে কে? ধর্ষকরা জেলে যায় ঠিকিই, কিন্তু ক্ষমতার দাপট খাটিয়ে আবার বেরিয়ে আসে। আমরা ধর্ষকের ফাঁসি চাই সবাই, কিন্তু দেশে কি সেই আইন আছে? ধর্ষকের শাস্তি জনসম্মুখে মৃত্যুদন্ড মাত্র তিন চারটা দিয়ে দেখুন, ধর্ষনতো দূরের কথা, কোনো মায়ের দিকে চোখ তোলে থাকানোর সাহস পাবে না।

রশীদ রওশান ১১ এপ্রিল ২০১৯ঃ
৩।সবাই ধর্ষণে‌র বিরুদ্ধে সোচ্চার কিন্তু বিবাহবহির্ভূত প্রেম-ভালবাসার আড়ালে হাজারো বৈধ(!) ধর্ষণ, গর্ভপাত,পরকীয়া‌র বিরুদ্ধে চুপ কেন???
কোনো মেয়ের অনিচ্ছা‌য় যৌন সম্পর্ক করলে ধর্ষণ!! আর কোনো মেয়ে‌দের ফাঁদে ফেলে যৌন সম্পর্ক করলে সেটা প্রেম-ভালোবাসা?? বিবাহবহির্ভূত প্রেমের মাধ্যমে নর-নারীরা হোটেল, পার্কে, রুম ডেটিং করলে সেটা সমস্যা নেই??যৌন সম্পর্কে‌র যদি মেয়ের ইচ্ছায় হয় তবে সমস্যা নাই!! সেটা নাকি ভালোবাসা, আধুনিকতা!! কিন্তু জোর করে ভিন্ন পুরুষ করলে সমস্যা? তখন ধর্ষণ হয়ে যায়? বিবাহবহির্ভূত প্রেম -নষ্টামী‌ও তো ধর্ষণ!! এইসব নষ্টামী বন্ধ করার জন্য কেন সবাই প্রতিবাদ করে না??? কেন স্কুল কলেজ,ভার্সিটিতে সহশিক্ষা বন্ধ ঘোষণা করা হচ্ছে না???আল্লমা আহমদ শফী(দামাত বারকাতুহুম) সহশিক্ষা‌র বিরুদ্ধে বলাতে যেসব কুলাঙ্গার নাস্তিক‌গুলোরচুলকানি শুরু হয়েছিল তারা এখন কোথায়??? নারীবাদী, নাস্তিকদের কাছে ,নষ্ট সমাজে কাছে প্রেমের নামে অবৈধ যৌনতার ধর্ষণ নয়,আধুনিকতা!! মুক্তমনা! কথিত বিজ্ঞান‌মনস্ক‌তা!

হক্বপন্থী আলেমগণ বহুদিন যাবৎ বলে আসছে,,,
“সহশিক্ষা অর্থাৎ, ছেলে-মেয়ে সহাবস্থানে থেকে শিক্ষাগ্রহণ বন্ধ করে আলাদা শিক্ষালয় ও বিদ্যালয় কিংবা ক্যাম্পাসের ব্যবস্থা করা ও মহিলা শিক্ষালয়ে পিয়ন থেকে শুরু করে অধ্যক্ষ পর্যন্ত মহিলা কর্তৃক পরিচালিত হওয়া আর, অনুরূপভাবে পুরুষ শিক্ষালয়ে সকল কর্মচারি,শিক্ষক ও অধ্যক্ষ পুরুষ হওয়া প্রয়োজন!!!
এছাড়াও, নারী-পুরুষের অবাধ মেলামেশা , ডিস চ্যানেলের নিয়ন্ত্রণ, ফেসবুক ও বিভিন্ন যোগাযোগ মাধ্যমের নিয়ন্ত্রণ,মেয়েদের পর্দাহীন ছবি আপলোড, ইন্টারনেটের অশ্লীল ভিডিও সাইটগুলো বন্ধকরণ, মাদক দ্রব্যের বাজারজাত বন্ধকরণসহ সকল শিক্ষার্থীকে দুনিয়াবী(গতি শিক্ষা) এর সাথে সাথে আখেরাতমুখী (নিয়ন্ত্রণ শিক্ষা) তথা, মৌলিক কুরআন,হাদিস ও খোদাভীতির শিক্ষা নিম্ন,মাধ্যমিক,উচ্চমাধ্যমিক সকল শিক্ষালয়ে অপরিহার্যভাবে সিলেবাসভুক্তকরণ ও
যারা ছোট খাটো ও আটোসাঁটো পোষাকে বের হয়ে অশ্লীলতার প্রতি আকর্ষণকারী ও যাদের কারণে পর্দাশীল নারীরা পর্যন্ত যৌন হয়রানীর শিকার হয় এদেরকেও সাজা প্রদান করতে হবে!!!

তবেই, দেশ হবে ধর্ষনমুক্ত!!!
কিন্তু, আপসোস ও অত্যন্ত পরিতাপের বিষয় হলো , আমরা এ কথাগুলোর প্রতি ইনসাফ ও বাস্তবতারসহিত বিবেচনা না করে হলুদ মিডিয়া ও কিছু কুরুচিশীল সাংবাদিক,অধ্যাপক,
শিক্ষক,বুদ্ধিজীবি ও সকল নাস্তিকদের সাথে সাথে আমরাও বুঝে কিংবা নাবুঝে বলতে লাগলাম ,,, এগুলো কার্যকর হলে দেশ ৩০০ বছর পিছিয়ে যাবে আর, এরা হলো তেঁতুল হুজুর,,,,,,নাউজুবিল্লাহ!!! বাংলাদেশে ধর্ষণ, বিবাহবহির্ভূত যৌনাচার বন্ধে ইসলামী শরীয়ত মোতাবেক আইন করা হোক,সহশিক্ষা বন্ধ করার পাশাপাশি অশ্লীলতা‌র মাধ্যম‌গুলো বন্ধ করা হোক।
Yes or No??
Source FB : Sumaya Akther Bristy
Post ID: 620964335031773